খেলা

ডি জংয়ের স্টপেজ টাইমের গোলে বার্সেলোনার জয়


স্পোর্টস ডেস্ক : ৯২ মিনিটে লুক ডি জংয়ের হেডের গোলে লেভান্তের বিপক্ষে লা লিগায় উত্তেজনাকর ম্যাচে শেষ পর্যন্ত জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছেড়েছে বার্সেলোনা। ডি জংয়ের শেষ মুহূর্তের গোলে ভ্যালেন্সিয়ায় বার্সেলোনার ৩-২ গোলের জয় নিশ্চিত জয়। এবারের লিগে ডাচ অভিজ্ঞ এই এ্যাটকারের এটি ষষ্ঠ গোল। কাল ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট ছিল ৫৬ মিনিটে বদলী বেঞ্চ থেকে ১৯ বছর বয়সী পেড্রিকে মাঠে নামানো। স্প্যানিশ এই তরুন মিডফিল্ডার মাঠে নামার পরেই পুরো ম্যাচের চেহারা পাল্টে যায়। কাতালান জায়ান্টরা পেড্রির উপর খুব বেশী নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে কোচ জাভি হার্নান্দেজ বলেছেন, ‘আমি এভাবে দেখতে চাচ্ছিনা। তবে পেড্রি একজন ব্যতিক্রমী খেলোয়াড়। আমি তাকে কোন প্রশংসার মধ্যে আটকে রাখতে চাইনা। সে এমন একজন খেলোয়াড় যার মধ্যে দলের পার্থক্য গড়ার পুরোপুরি ক্ষমতা আছে। তার খেলা মানুষ উপভোগ করে।’
প্রথমার্ধের ৪৫ মিনিট গোলশুন্য থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে লেভান্তে এগিয়ে যায়। ৫২ মিনিটে হোসে লুইস মোরালেস স্পট কিক থেকে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন। ডি বক্সের ভিতর সনকে আটকাতে গিয়ে ফাউল করে বসেন ডানি আলভেস। এরিক গার্সিয়ার হ্যান্ডবলে ৫৬ মিনিটে দ্বিতীয় পেনাল্টি থেকে রজার মার্টি বার্সা গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টার স্টেগানকে পরাস্ত করতে পারেননি। ৫৬ মিনিটে পেড্রি বদলী বেঞ্চ থেকে উঠে আসার তিন মিনিটের মধ্যে বার্সেলোনা সমতায় ফিরে। ওসমানে ডেম্বেলের ক্রস থেকে পিয়েরে-এমেরিক অবামেয়াংয়ের গোলে বার্সেলোনা শিবিরে স্বস্তি ফিরে আসে। ৬৩ মিনিটে দুজনকে ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে গাভির দারুন এক পাসে পেড্রি বার্সাকে এগিয়ে দেন। ডানি গোমেজকে ফাউলের অপরাধে ক্লেমেন্ট ল্যাঙ্গেলটের বিপক্ষে ৮৩ মিনিটে তৃতীয় পেনাল্টি উপহার পায় লেভান্তে। এবার আর কোন ভুল করেননি গঞ্জালো মেলেরো। ম্যাচের সময় যত গড়াচ্ছিল ততই মনে হচ্ছিল লেভান্তে হয়ত এক পয়েন্ট নিয়ে বাড়ি ফিরবে। কিন্তু ম্যাচের নাটকীয়তা তখনো বাকি ছিল। ইনজুরি টাইমে জোর্দি আলবার ক্রস থেকে ডি জংয়ের মাথা ছুঁইয়ে বল যখন জালের ঠিকানা খুঁজে পায় পুরো বার্সেলোনা শিবির উল্লাসে ফেটে পড়ে। ম্যাচ শেষে জাভি বলেছেন, ‘আমরা যখন ভাল না খেলেও নিজেদের এগিয়ে নিয়ে যাবার লক্ষ্যে স্থির থাকি তখন আমাদের জয়ের মানসিকতা প্রমানিত হয়।’ এই জয়ে সেভিয়াকে পিছনে ফেলে আবারো লা লিগা টেবিলের দ্বিতীয় স্থান নিশ্চিত করেছে বার্সেলোনা। যদিও টেবিলের শীর্ষে থাকা চির প্রতিদ্ব›দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের থেকে তারা এখনো ১২ পয়েন্ট পিছনে আছে। শনিবার গেতাফেকে ২-০ গোলে পরাজিত করে লিগ টেবিলে আরো এগিয়ে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ। জাভির দল যদিও রিয়াল মাদ্রিদ, সেভিয়া ও এ্যাথলেটিকোর মাদ্রিদের থেকে এক ম্যাচ কম খেলেছে। শনিবার মায়োর্কার কাছে পরাজিত হয়ে সেভিয়ার থেকে তিন পয়েন্ট পিছিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এ্যাথলেটিকো। গত সপ্তাহে সেভিয়ার বিপক্ষে জয়েও পেড্রি অসাধারণ একটি গোল করেছিলেন। লেভান্তের বিপক্ষে মূল একাদশে তিনি সুযোগ না পেলেও তাকে মাঠে পেয়ে পুরো দলই বদলে যায়। জানুয়ারিতে আর্সেনাল থেকে দলে যোগ দেবার পর গ্যাবনিজ স্ট্রাইকার অবামেয়াং নিজ গুনেই নিজেকে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন। নতুন ক্লাবের হয়ে ১৪ ম্যাচে ইতোমধ্যেই করে ফেলেছেন ১০ গোল।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button