লিড নিউজ

র‌্যাব স্টাইলে নৌকার মাঝির তেলেসমাতি

 

শাহজাদপুর প্রতিনিধি : কাল পোশাক পরে রীতিমত র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) স্টাইলে নৌকার মাঝির সমর্থকরা মাঠে নেমে প্রকাশ্য ভয়ভীতি দেখানোয় তোলপাড় চলছে। ঘটনাটি ঘটেছে সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরি ইউনিয়নে। সরেজমিনে দেখা গেছে, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে মুখে ও মাথায় কালো কাপড় বাঁধা সন্ত্রাসী বাহিনী বেষ্টিত হয়ে নির্বাচনি সভা করা ও ভোটারদের ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ উঠেছে।

এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. শামসুজ্জোহা বলেন, মুখে কালো কাপড় বাধা বাহিনীর বিষয়টি আমাদের নজরেও এসেছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।ওই ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী (প্রতীক ঘোড়া) ঠুটিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও কৈজুরি ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোয়াজ্জেম হোসেন খোকন বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার বরাবর এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন।প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে এর অনুলিপি দিয়েছেন সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক, সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার, রিটার্নিং কর্মকর্তাকে। শুক্রবার বিকেলে তিনি স্থানীয় সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

স্বতন্ত্র প্রার্থী মোয়াজ্জেম হোসেন খোকন জানান, গত ৮ ডিসেম্বর বুধবার বিকেল ৪টায় হাট পাচিল বাজারে নির্বাচনী পথসভা করেন নৌকার প্রার্থী। এ সভা চলাকালে মুখে ও মাথায় কালো কাপড় মোড়ানো ১০ জন সন্ত্রাসী পরিবেষ্টিত হয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন।

তার অভিযোগ, ক্ষমতাসীন দলের নেতা বলেছেন, নৌকায় ভোট না দিলে নির্বাচনের পরে কারও বাড়িতে গরু-ছাগল কিছু থাকবে না। শান্তিতে বাস করতে চাইলে আগামী ২৬ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে হবে। নৌকা প্রতীকে যারা ভোট দেবেন না, তাদের ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার দরকার নাই।এ সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, শাহজাদপুর পৌরসভার মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদীসহ শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের একাধিক নেতারা। এর পর থেকে ভোটারদের মধ্যে চরম আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শাহজাদপুর পৌরসভার মেয়র মনির আক্তার খান তরু লোদী উল্টো প্রশ্ন করেন, কালো কাপড় পড়ায় আইনি কোনো বাধা আছে নাকি?পরে বলেন, আমি বক্তব্য দেয়ার সময় সামনের দিকে তাকিয়ে ছিলাম। পেছনে কারা ছিল তা আমি দেখতে পাইনি। যতদূর সম্ভব ষড়যন্ত্র করে স্বতন্ত্র প্রার্থী (ঘোড়া মার্কা) এই কাজটি করেছে।

এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা (কৈজুরি ও জালালপুর) ও শাহজাদপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ফজলুল হক বলেন, আমি কালো কাপড় মুখে বাধা ছবিগুলো দেখেছি। সেগুলো দেখার পর কৈজুরি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুল ইসলামকে সতর্ক করা হয়েছে।

ওদিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাইফুল ইসলাম বলেন, এরা সকলেই আমার সমর্থক। তারা ধুলা-বালি থেকে মুক্ত থাকার জন্য কালো মাস্ক আর মাথায় কালো কাপড় পরেছিল। আমরা কখনই কোনো ভোটারকে ভয়ভীতি দেখাইনি। আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।

 

 

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button