বিশেষ প্রতিবেদন

কাবার ক্যালিওগ্রাফি বীরবাঙ্গালীর

 

সৌদি আরব থেকে এএম শহিদুল্লাহ : কাবা শরীফের ক্যালিওগ্রাফি করেন এক বীর বাঙ্গালী। ভাবতেই বিষয়টা গর্বে ভরে যায় প্রতিটি বাংলাদেশীর। চট্টগ্রামের বাসিন্দা এই ক্যালিওগ্রাফার ৪ বছর বয়সে বাবার সঙ্গে সৌদি আরব যান। বর্তমানে তিনি মহাপবিত্র কাবা শরীফের গিলাফে ক্যালিওগ্রাফি এঁকে সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পেলেন দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে বাংলাদেশের মোক্তার আলম। তিনি একমাত্র ব্যক্তি যার চাকরীর জন্যে সৌদি আরব সরকারের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে। সম্প্রতি সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পেয়েছেন কাবা ঘরের গিলাফের ক্যালিগ্রাফার বাংলাদেশের মোক্তার আলম শুকদার দেশবাসীর দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

জানা গেছে, সৌদি সরকার নতুন নীতি অনুযায়ী, দক্ষ লোকজনদের দেশটির নাগরিকত্ব দেওয়ার বিধান শুরু করেছে – আর এতে করে প্রথম একজন বাংলাদেশী হিসেবে সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পেয়েছেন মোক্তার আলম। ১৯৬২ সালে চট্টগ্রামে জন্ম নেন মোক্তার আলম। তিনি চার বছর বয়সেই বাবা-মায়ের সাথে সৌদি আরব চলে যান। সেখানেই তিনি কোরআনে হাফেজ হন এবং ক্যালিগ্রাফি শিখেন। চতুর্থ শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় তিনি ক্যালিগ্রাফি শিক্ষক হিসেবেও কাজ শুরু করেন।গত ২০ বছরের বেশি সময় ধরে তিনি কাবা ঘরের গিলাফ-সহ হারেম শরিফে বিভিন্ন ক্যালিগ্রাফি করে চলেছেন।

 

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button