Businessঅর্থনীতি

১২ ঘণ্টায় সিটি ব্যাংকের লোন পেলো ৪৮৫ বিকাশ গ্রাহক

 

 

অর্থনৈতিক রিপোর্টার : বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো চালু হওয়া সিটি ব্যাংকের ‘ডিজিটাল ন্যানো লোন’ পেলো ৪৮৫ জন বিকাশ গ্রাহক। দেশে প্রথমবারের মতো চালু হয়েছে এই ডিজিটাল ক্ষুদ্রঋণ সেবা। ২০১২ সালে কেনিয়ায় প্রথম এ ধরনের ডিজিটাল ঋণ চালু হয়।গতকাল বিকাশের মাধ্যমে এ সেবা উদ্ধোধন করার মাত্র ১২ ঘণ্টায় সিটি ব্যাংক ৪৮৫ জন বিকাশ গ্রাহকদের এ ঋণ দিয়েছে।এ পদ্ধতিতে ঋণ পেতে গ্রাহককে কোনো নথিপত্র জমা দেওয়ার দরকার হয় নি। কোনো জামিনদার লাগে নি। ঋণ পেতে গ্রাহক তার বিকাশ অ্যাপ থেকে ‘লোন’ আইকনে ক্লিক করে ঘরে বসেই ঋণ পেয়েছেন।

এ বিষয়ে সিটি ব্যাংক জানিয়েছে, নতুন এ সেবার মাধ্যমে গতকাল দুপুর ১২টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ৯ লাখ ৭৬ হাজার টাকা ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। বিকাশের ৪৮৫ গ্রাহক এ ঋণ পেয়েছেন। তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা মেনে গ্রাহকের কিছু যোগ্যতা নির্ধারণ করে দেওয়ায় বিকাশের সব গ্রাহক এ সুবিধা পাচ্ছেন না। যার কারণে অনেক গ্রাহক ঋণ পাওয়ার চেষ্টা করেও পাচ্ছেন না।এ বিষয়ে বিকাশের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, শুরুতে শুধু যে গ্রাহকেরা বায়োমেট্রিক পদ্ধতির মাধ্যমে তথ্য সরবরাহ করে বিকাশ হিসাব খুলেছেন, তারাই সিটি ব্যাংকের ডিজিটাল ঋণ পাচ্ছেন। এর মধ্যে যারা বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করেন এবং বিকাশের মাধ্যমে নিয়মিত লেনদেন করেন, তারাই ঋণ পাওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাচ্ছেন।

জানা গেছে, ঋণের আবেদন কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার পর্যালোচনায় উত্তীর্ণ হলে মুহূর্তেই ঋণের টাকা চলে যাবে গ্রাহকের বিকাশ হিসাবে। ৯ শতাংশ সুদে ৫০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত ঋণ মিলবে। ঋণের মেয়াদ সর্বোচ্চ তিন মাস। এই ঋণের বার্ষিক সুদহার ৯ শতাংশ। এবং ঋণের মাশুল হবে ঋণের দশমিক ৫ শতাংশ।
২০১২ সালে কেনিয়ায় প্রথম ডিজিটাল ঋণ চালু হয়। এরপর তা ছড়িয়ে পড়ে আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে। এখন ছোট অঙ্কের টাকার জন্য এই ডিজিটাল ঋণ বিভিন্ন দেশে বেশ জনপ্রিয়।

 

 

 

 

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button