জেলার খবর

বসুন্ধরার কম্বলে আনন্দে ভরে ওঠে আমিরোনের মুখ

 

স্টাফ রিপোর্টার : জীবনের প্রত্থম আমাগের কেউ কম্বল দিলো। এতদিন ধরে কত জনরে কইছি, কেউ আমাগের কথা শোনে না। এই গাঁয়ের মানুষরে কেউ দ্যাহে না, আল্লাহ আপনাগের বাচায়ে রাখুক- বসুন্ধরা গ্রুপের কম্বল পেয়ে অশ্রুসজল চোখে একথা বলেন কালিয়ার প্রত্যন্ত মাটিয়াডাঙ্গা গ্রামের সত্তোর্ধ্ব বৃদ্ধা আমিরোন বেগম। কম্বলটি গায়ে জড়াতেই আনন্দে ভরে ওঠে আমিরোনের মুখ। তার মতো প্রতিবন্ধী বৃদ্ধ ইসলাম শেখ কিম্বা পরান দাসের কণ্ঠে একই কথা শোনা যায়।

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা গাজিপুর-মাটিডাঙ্গা গ্রামের ৩ শতাধিক শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছে দেশের শীর্ষ ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপ। কালের কণ্ঠ শুভসংঘের ব্যবস্থাপনায় গত সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) সকালে কালিয়ার মহাজন-গাজিপুর এলাকায় এসকল কম্বল বিতরণ করা হয়।

দেশের বৃহত্তম শিল্প প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের সহয়তায় কালের কণ্ঠ শুভসংঘের আয়োজনে ঝিনাইদহে দুস্থ-দরিদ্র-অসহায় শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে ঝিনাইদহ বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান স্টেডিয়ামে কম্বল বিতরণের আনুষ্ঠানিক উদ্ভেধন করেন ঝিনাইদহ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সেলিম রেজা। ঝিনাইদহ পৌর এলাকার ৫ শতাধিক শীতার্তের হাতে কম্বল তুলে দেওয়া হয়।

দেশের সুনামধন্য শীর্ষ শিল্প প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা গ্রুপের আর্থিক সহায়তায় চাটমোহর উপজেলা শুভসংঘের আয়োজনে ৫ শ শীতার্ত মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১২টায় চাটমোহর সরকারি ডিগ্রী কলেজ মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের তত্বাবধানে এই অনুষ্ঠান পরিচালিত হয়।

 

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button