জাতীয়

পাবনা ঝিনাইদহ মহেশপুরে বসুন্ধরা গ্রুপের কম্বল বিতরণ

ডেস্ক রিপোর্টার : বসুন্ধরা গ্রুপের সহায়তায় মঙ্গলবার সকাল ১০টায় পাবনা টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে ৪০০ শীতার্তের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ। কম্বল বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পাবনা পুলিশ সুপার মো. মহিবুল ইসলাম খান (বিপিএম)।

কম্বল হাতে পেয়ে বৃদ্ধা সেতারা খাতুন বলেন, ‘কয়েক দিনের শীতে মোটা একটা কাপড়ের জন্যি একটু ভালো করে ঘুমও পাড়বের পারতেছিলাম না। শীতে খুব কষ্ট করে রাত পার করতিছিলেম। কত জনেক কইছি একটা কম্বল দেওয়ার জন্যি, কেউ দেয় না। আজ ইনারা (বসুন্ধরা গ্রুপ) একটা কম্বল দিলো। বাপু রে অনেক দরকার ছিল কম্বলটা।’

কম্বল বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন পাবনা পৌরসভার মেয়র মো. শরীফ উদ্দিন প্রধান, পাবনা টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ইঞ্জিনিয়ার মো. জমিদার রহমান, শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামান, পাবনা টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের বাংলা বিভাগের ইনসট্রাকটর ও উপদেষ্টা আলি আকবর মিয়া রাজু, পাবনা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈকত আফরোজ, দেশ রূপান্তর পত্রিকার পাবনা প্রতিনিধি রিজভী জয়, কালের কণ্ঠের চাটমোহর উপজেলা প্রতিনিধি আব্দুল লতিফ রঞ্জু প্রমুখ।

‘জারের ঠেলায় গাঁ-পা শুধু কাপে। যারে দেহি তার কাছেই জারের কাপড় চাই। একজন পুরেন জাম্পার দিছে। জাম্পারে জার মানে না। কাইল এক গেদা কাগজ ধরাইয়া দিয়া কইল ভাঙ্গরে স্কুলে যাইতে। তাইল কম্বল পাবো। আজ আসতেই গেদারা আমাক কম্বল গায় জড়াইয়া দিল। এখন এই কম্বল গায় দিয়ে রাত্রে সুমু।’ শুভসংঘের কম্বল পেয়ে কথাগুলো শুভসংঘের পরিচালক জাকারিয়া জামানের কাছে কথাগুলো বলছিলেন ৮০ বছরের বৃদ্ধা সোনেকা খাতুন।

মঙ্গলবার বিকেলে সরকারি ভাঙ্গুড়া মডেল ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে ৪০০ অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করে কালের কণ্ঠ শুভসংঘ। বসুন্ধরা গ্রুপের অর্থায়নে এই কম্বল বিতরণ করা হয়এছাড়াও ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার শীতার্ত ও দুস্থ অসহায় মানুষের মাঝে চার শতাধিক কম্বল বিতরণ করেছে বসুন্ধরা গ্রুপ।

দেশের শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী বসুন্ধরা গ্রুপের পক্ষ থেকে এবং দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকার সংগঠন শুভসংঘের আয়োজনে মঙ্গলবার (০৪ জানুয়ারি) সকালে মহেশপুর উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে এ কম্বল বিতরণ করা হয়। বসুন্ধরা গ্রুপের কম্বল পেয়ে খুশি গরিব ও দুস্থরা। এসময় তারা কালের কণ্ঠ পত্রিকার সংগঠন শুভসংঘকে ধন্যবাদ জানান।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button