অর্থনীতি

আনভীরের নেতৃত্বে বাজুস স্বর্ণালংকার রপ্তানি করবে

 

স্টাফ রিপোর্টার : বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) তিন দিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ জুয়েলারি এক্সপো ২০২২’-এর উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের পরিচালক এবং দেশবরেণ্য কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন এই এক্সপোর উদ্বোধন করেন। এ সময় দেশের ঐতিহ্যবাহী বাণিজ্য সংগঠন বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বাজুস) সাবেক ও বর্তমান নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই জুয়েলারি মেলা ১৭ মার্চ থেকে ১৯ মার্চ পর্যন্ত চলবে।
এক্সপোর উদ্বোধন করে ইমদাদুল হক মিলন বলেন, আজকে ঐতিহাসিক দিন। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন। সুতরাং জুয়েলারি এক্সপোর জন্য আজকের মতো শুভ দিন আর হয় না। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা কথাটির সঙ্গে উপস্থিত ব্যবসায়ীদের স্বপ্নের মিল আছে। আমাদের প্রধানমন্ত্রীও সোনার বাংলা গড়তে চাইছেন। তিনি বলেন, হাজার হাজার বছরের ঐতিহ্যবাহী পেশার সঙ্গে যারা জড়িত, আমি মনে করি, তারাও সোনার মানুষ। তাদের হাত ধরে দেশও সোনার দেশ হয়ে উঠতে পারে, যে স্বপ্ন বঙ্গবন্ধু দেখেছিলেন।

ইমদাদুল হক মিলন আরো বলেন, জাতির পিতার জন্মবার্ষিকীর এই মহান দিনে জুয়েলারি শিল্পের নতুন একটি যাত্রা শুরু হয়েছে। বাংলাদেশে জুয়েলারি এক্সপোর আয়োজন হবে সেটি আগে চিন্তাও করতে পারতেন না জুয়েলারি ব্যবসায়ীরা। সেটি সম্ভব করে দিয়েছে বাজুসের বর্তমান সভাপতি সায়েম সোবহান আনভীর। এই আনভীরের নেতৃত্বেই বাজুস স্বর্ণালংকার রপ্তানি করবে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বে। তিনি বলেন, গার্মেন্টসের মতোই দেশের স্বর্ণ শিল্পও বিশ্ব বাজারে জায়গা দখল করে নেওয়ার লক্ষেই কাজ করছে বাজুস।

বাজুসের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেন, বাজুসের নতুন নেতৃত্ব ক্রান্তিকালে হাল ধরেছে। এ শিল্পের বিকাশে অনেক বড় বিনিয়োগ এসেছে। ফলে দেশের স্বর্ণ ব্যবসা শিল্পে রূপান্তরিত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।বাজুসের সাবেক সভাপতি ড. দিলীপ রায় বলেন, অতি সম্প্রতি দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলার ব্যবসায়ীরা বাজুসের পতাকাতলে এসেছেন। আশা করা যায়, স্বর্ণ এবার বিদেশে রপ্তানি হবে। গার্মেন্টসের পর এ শিল্প সবচেয়ে বেশি রপ্তানি আয় করবে। সরকারকে রাজস্ব দেবে। বিদেশিরা স্বর্ণের জন্য বাংলাদেশে আসবে।

জানা গেছে, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা সকল ক্রেতা ও দর্শনার্থীর জন্য বিনামূল্যে প্রবেশ উন্মুক্ত থাকবে। মেলায় আগত দর্শনার্থীদের জন্য র‍্যাফেল ড্রতে নগদ ১০ লাখ টাকার প্রথম পুরস্কার, ৫ লাখ টাকার ২য় পুরস্কার এবং ৩য় পুরস্কার হিসেবে পরবর্তী ১০ জনের জন্য রয়েছে ১ লাখ টাকা করে ১০ টি । মেলায় সাংবাদিকদের জন্য থাকছে আলাদা র‍্যাফেল ড্র। এ দেশের স্বর্ণশিল্পীদের হাতে গড়া নিত্যনতুন ডিজাইনের অলংকারের পরিচিতি ঘটাতে ‘বাংলাদেশ জুয়েলারি এক্সপো ২০২২’-এ দর্শনার্থী ও ক্রেতাসাধারণকে আমন্ত্রণ জানান বক্তারা।
বাজুস জানিয়েছে, হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে দুঃসাহসিক এক অভিযাত্রায় সহযাত্রীদের সঙ্গে নিয়ে দেশের অর্থনৈতিক খাতের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় যোগ দিতে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস) এই প্রথম বাংলাদেশে ‘বাংলাদেশ জুয়েলারি এক্সপো ২০২২’-এর আয়োজন করেছে।

 

সংশ্লিষ্ট খবর

মন্তব্য করুন

Back to top button