অর্থনীতি

ঈদের বাজারে শিশুদের পোশাকের দামও বাড়তি


অর্থনীতি ডেস্ক : ঈদ উপলক্ষে জমে উঠতে শুরু করেছে ছোট্ট সোনামণিদের কেনাকাটা। তবে শিশুদের পোশাকের বাড়তি দাম নেওয়া হচ্ছে বলে জানালেন ক্রেতারা। এদিকে বিক্রেতারা বলছেন, বিক্রি না বাড়লে এবারও লোকসান গুনতে হবে। হাতে গোনা কয়েক দিন পরেই খুশির ঈদ। তাই তো বড়দের পাশাপাশি ছোট্ট সোনাদের ঈদ কেনাকাটা চলছে। রাজধানীর টিকাটুলির রাজধানী সুপার মার্কেট সরেজমিন দেখা যায়, এখানে ছোটদের বিভিন্ন মানের দেশি-বিদেশি পোশাকের কমতি নেই। বিভিন্ন বয়সী ছোট ছেলেমেয়ে নিয়ে অভিভাবকরা পছন্দের পোশাক খুঁজে ফিরছেন দোকানে দোকানে। তবে পোশাক পছন্দ হলেও দাম বেশির অভিযোগ করেন তারা। সন্তান নিয়ে মার্কেটে আসা ক্রেতারা বলেন, সন্তানের জন্য ঈদের পোশাক কিনতে এসেছি। তবে আগে যে পোশাক ৫০০ টাকায় পাওয়া যেত, তা এখন ৮০০-৯০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এদিকে বিক্রেতারা বলছেন, ১৫ রমজান পার হলেও আগের মতো ক্রেতাসমাগম নেই। তারা বলেন, এবার শিশুদের পোশাকের কালেকশন ভালো। সব ধরনের পোশাকই বাজারে রয়েছে। তবে ক্রেতা না থাকায় সব ব্যবসায়ী এখন চিন্তিত। ক্রেতা থাকলে এ চিন্তা করতে হতো না। মধ্যবিত্তের মার্কেট ছেড়ে পাশেই ওয়ারী ও বেইলি রোডের উচ্চবিত্তের মার্কেট। এসব এলাকার শপিংমলে ছোটদের বেশির ভাগ কালেকশনই থাকে বিভিন্ন দেশের। তবে কোথাও বিক্রি ভালো হলেও কোথাও অপেক্ষার প্রহর গোনা। তা ছাড়া এখানেও পোশাকের দাম তুলনামূলক বেশির অভিযোগ করেন ক্রেতারা। পোশাকের কালেকশন ঘুরেফিরে আগের বছরের হলেও দাম আগের তুলনায় অনেক বেশি অভিযোগ করে ক্রেতারা বলেন, পোশাক দেখে ভালো লাগছে, তবে দাম অনেক বেশি। অন্যান্য বছরের তুলনায় কালেকশন কম। আগের বছরের কালেকশনগুলোই আবার ঘুরেফিরে আসছে। তবে দাম আগের তুলনায় অনেক বেশি। তবে বিক্রেতারা জানান, পাইকারি পর্যায়ে দাম বেশি হওয়ায় বেশি দামে পোশাক বিক্রি করতে হচ্ছে। এবারের ঈদে প্রত্যাশিত বেচাকেনা না হলে লোকসানের আশঙ্কার কথাও জানান অনেক ব্যবসায়ী।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button