খেলা

বেনজিমার গোলে রিয়াল মাদ্রিদের অবিশ্বাস্য প্রত্যাবর্তন


স্পোর্টস ডেস্ক : যে ম্যাচ হারলে লিগ শিরোপার হিসেবটা একটু ওলট-পালট হয়ে যেত। ঠিক এমন ম্যাচেই প্রত্যাবর্তনের অবিশ্বাস্য গল্প লিখলো রিয়াল মাদ্রিদ। তাও শুরুতে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে! লা লিগায় সেভিয়াকে ৩-২ গোলে হারিয়েছে লস বøাঙ্কোস। তাতে লিগ শিরোপা জয়ের পথেও বড় পদক্ষেপ নিয়েছে কার্লো আনচেলত্তির দল। শুরুর ২৫ মিনিটের খেলা দেখে কেউ হয়তো ঘুণাক্ষরেও ভাবেননি দুটি গোল হজম করে ফেলবে বেনজিমারা। তবে বিরতির পর যে এভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে অবিশ্বাস্য প্রত্যাবর্তনের গল্প লেখা হবে- সেটাই বা কে ভেবেছিল? ২১ মিনিটেই মাদ্রিদ শিবিরকে স্তব্ধ করে দিয়েছিলেন ইভান রাকিতিচ। ফ্রি কিক থেকে বাঁকানো শটে থিবো কোর্তোয়াকে বোকা বানান স্বাগতিক দলের ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার। চার মিনিট পর স্কোর ২-০ করতে সময় নেননি সেভিয়ার এরিক লামেলা। যা শুধু সেভিয়াকেই নয়, শিরোপা সম্ভাবনায় বার্সেলোনাকেও আশান্বিত করছিল! পরে সেই সম্ভবনা উবেও গেছে রিয়াল মাদ্রিদের অবিশ্বাস্য প্রত্যাবর্তনে। শুরুর ৪৫ মিনিট যে রিয়ালকে দেখা যায়নি। বিরতির পর ঠিক বিপরীত মূর্তিতে দেখা গেছে তাদের। একের পর এক আক্রমণ শাণিয়ে তুলে নিয়েছে তিন গোল। দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটেই গোল পেতে পারতো অতিথিরা। কিন্তু করিম বেনজিমা সেভিয়া গোলকিপার বোনোকে পরাস্ত করতে পারেননি। তার শট ফিরিয়ে দেন তিনি। দুই মিনিট পর অবশ্য আর ভুল হয়নি। বক্সের বাইরে পাওয়া সতীর্থের পাস শক্তিশালী শটে জালে জড়িয়ে দেন বদলি হয়ে নামা রদ্রিগো। ৮২ মিনিটে স্কোর ২-২ করেন নাচো।
তবে ৭৮ মিনিটেই সমতায় ফিরতে পারতো রিয়াল। সেটি হয়নি ভিনিসিয়ুস জুনিয়রের গোলটি হ্যান্ডবলে বাতিল করে দেওয়ায়। রেফারি ভার রিভিউতে পিচসাইড মনিটরে দেখেও সিদ্ধান্ত বদলাননি। নাচোর গোলের পর নিজেদের অদম্য মনোভাবের পুরস্কার মেলে ইনজুরি সময়ে। ৯০+২ মিনিটে রিয়ালের অবিশ্বাস্য প্রত্যাবর্তনের গল্পটা পূর্ণতা পায় বেনজিমার গোলে। এই জয়ের পর ৩২ ম্যাচে ৭৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে রিয়াল। দুই ম্যাচ কম খেলে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে বার্সেলোনা। সেভিয়াও ৩২ ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে তিনে অবস্থান করছে।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button