গনমাধ্যমজাতীয়

ইলিয়াস কে গুম করেনি র‍্যাব


স্টাফ রিপোর্টার :  নিখোঁজ বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলী প্রসঙ্গে সুইডেনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম নেত্র নিউজে প্রকাশিত সংবাদটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করেছেন র‍্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন তিনি।

খন্দকার আল মঈন বলেন, নেত্র নিউজে র‍্যাবকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। বিএনপি নেতা ইলিয়াস আলীকে র‌্যাব অপহরণ করেনি। তাকে যখন থেকে পাওয়া যাচ্ছে না, তখন থেকেই তার স্ত্রীকে আমরা সর্বোচ্চ আইনি সহযোগিতা দিয়েছি। তিনি যেখানে যেখানে তার স্বামী অবস্থান করতে পারেন সন্দেহ পোষণ করেছেন বা তিনি যে তথ্য দিয়েছেন তার সহযোগিতায় আমরা ইলিয়াস আলীকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছি। এখনো সহযোগিতা করে যাচ্ছি। এ বিষয়ে আমদের যদি কেউ তথ্য দেন… আমরা কিন্তু চাই ইলিয়াস আলীকে খুঁজে বের করতে। এটা কিন্তু আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব।

র‍্যাবের সব ধরনের অভিযান আইন মেনে করা হয় জানিয়ে খন্দকার আল মঈন বলেন, প্রকাশিত সংবাদটিতে যেসব তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরা হয়েছে তার সবই ভিত্তিহীন। এটাই আমাদের বক্তব্য।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি নেত্র নিউজ অনলাইন পোর্টালে এবং তাদের ইউটিউব চ্যানেলে প্রচারিত একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, ইলিয়াস আলীর গুম বা অপহরণের পেছনে র‌্যাবের গোয়েন্দা বিভাগের হাত ছিল বলে নিশ্চিত হয়েছিল র‌্যাব-১। তারা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে গোপন নথির মাধ্যমে বিষয়টি জানিয়েছিল।

এদিকে বুধবার (২০ এপ্রিল) মধ্যরাতে মানিকগঞ্জে র‍্যাবের উপর হামলার বিষয়ে জানতে চাইলে কমান্ডার খন্দকার মইন বলেন, সাভার থেকে মানিকগঞ্জের উদ্দেশ্যে র‍্যাবের একটি মাইক্রোবাস যাচ্ছিল। পথে র‍্যাবের গাড়ির ওপর অতর্কিত গুলি চালানো হয়।

তিনি বলেন, এরপর পেছনে থাকা আমাদের টহল টিমের সঙ্গে হামলাকারীদের গুলিবিনিময় হয়। ঘটনার পর আমাদের ফরেনসিক টিম গিয়ে সেখানে কাজ শুরু করে। আরেকটি দল অস্ত্রের খোঁজে তল্লাশি শুরু করে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে বেশ কিছু দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। সেখানে একজনকে আহত অবস্থায় পাওয়া যায়।

আহত ব্যক্তির নাম মো. কাওসার, তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে হাসপাতালে মারা যায়। পরে র‍্যাব জানতে পারে আহত কাওসার আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ, হত্যাসহ ১২টিরও বেশি ডাকাতির মামলা রয়েছে।

র‍্যাবের ওপর বারবার এমন হামলা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, র‍্যাবের ওপর হামলা নতুন কিছু নয়। কিছুদিন আগেও কুমিল্লায় র‍্যাবের ওপর হামলা হয়েছে। সেখানে র‍্যাবের এক সদস্য আহত হয়েছেন। তাকে আইসিইউতে নিয়ে গুলি বের করতে হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, মাদকবিরোধী অভিযানসহ বিভিন্ন অপারেশনে র‍্যাবের ওপর হামলা হয়েছে। এই সব হামলায় র‍্যাবের ২৯ জন সদস্য শহীদ হয়েছেন, প্রায় এক হাজারের বেশি সদস্য আহত হয়েছেন। অভিযানে গেলে সন্ত্রাসীদের হামলা থাকবেই, এটা মেনে নিয়েই আমরা কাজ করছি।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button