বিমান-সিভিল-এভিয়েশন

‘বলাকায়’ বিমানের ১১০০ কোটি লোকসানের তদন্তে দুদক

 

বিশেষ প্রতিনিধি : অবশেষে সোয়া দুই মাস পর মিশরীয় বিমান লিজ নিয়ে সরকারের ১১০০ কোটি লোকসানের তদন্তে গেলো দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গত ২৪ মার্চ জাতীয় সংসদ ভবনে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠক হয়। সে বৈঠকে মিসরীয় উড়োজাহাজ লিজ নেয়ার ক্ষেত্রে অনিয়মের অভিযোগ দুদকের মাধ্যমে তদন্তে কার্যবিবরণীর অনুমোদন দেয়া হয়। ওই সময় সংসদীয় কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। এতে অংশ নেন কমিটির সদস্য ও প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, কাজী ফিরোজ রশীদ ও তানভীর ইমাম অংশ নেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার সোয়া দুই মাস পর বলাকায় অভিযানে গেলো দুদক।

লোকসানের নথি খুঁজতে বিমানের সদর দপ্তর বলাকায় বুধবার বেলা ১১টার দিকে এ অভিযান শুরু করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের গণমাধ্যম শাখা জানায়, দুদকের উপপরিচালক মো. সালাহউদ্দিনের নেতৃত্বে একটি দল বলাকা কার্যালয়ে অভিযান চালায়।

অভিযানে দুদকের কর্মকর্তারা ইজিপ্ট এয়ারের ‘রিপোর্ট অফ ফিজিক্যাল ইন্সপেকশন অফ টু ৭৭৭-২০০ ইআর এয়ারক্রাফট’ শীর্ষক পরিদর্শন প্রতিবেদনের কপি, উড়োজাহাজ লিজ নিতে ২০১৩ সালের ২৮ অক্টোবর গঠিত টিম, তাদের আদেশ ও এ-সংক্রান্ত নথির কপি, ২০০৯ সালের ১১ জুনে অনুষ্ঠিত ফ্লাইট প্ল্যানিং কমিটির লিজ নেয়া সংক্রান্ত সভার সিদ্ধান্তের কপি, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস লিমিটেডের ক্রয় নীতিমালা ও আর্থিক কার্যক্রমের সত্যায়িত কপির সন্ধান করছেন।

এর বাইরে বিমান লিজ নেয়ার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক দরপত্র আহ্বানের সিদ্ধান্ত সংক্রান্ত নথি, টেন্ডার বিজ্ঞপ্তি ও নোটসহ পূর্ণাঙ্গ নথির সত্যায়িত কপি, লিজ নেয়ার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক দরপত্র ও বিজ্ঞপ্তি কোন কোন পত্রিকায় এবং ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়েছে তার রেকর্ডপত্র, দরপত্র উন্মুক্তকরণ কমিটির প্রতিবেদন ও দরপত্রে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানিগুলোর তালিকা, লিজগ্রহণ প্রক্রিয়ায় দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির প্রতিবেদন, দরপত্র বিজ্ঞপ্তি থেকে শুরু করে উড়োজাহাজ দুটি লিজ গ্রহণ এবং ফেরত দেয়া পর্যন্ত যাবতীয় ব্যয়ের বিল-ভাউচার, রেজিস্ট্রার, ব্যাংক হিসাব বিবরণী, মুড অফ ট্রান্সজেকশন সংক্রান্ত রেকর্ডপত্রের সত্যায়িত কপি, এয়ারক্রাফট লিজ গ্রহণের উদ্দেশ্যে গঠিত ইন্সপেকশন টিম সদস্যদের নাম, পদবি ও বর্তমান ঠিকানাসহ তালিকা, তাদের প্রত্যেকের ব্যক্তিগত নথির সত্যায়িত কপি খোঁজা হচ্ছে।

ইন্সপেকশন টিম সদস্যদের পাসপোর্টের প্রথম দুই পৃষ্ঠার ফটোকপি এবং মিসরে অবস্থান সংক্রান্ত যাবতীয় রেকর্ডপত্রের সত্যায়িত কপি, উড়োজাহাজ দুটির বর্তমান অবস্থা ও অবস্থান সংক্রান্ত তথ্যাদি, বিমানের তিনটি চেক (এসিডি) সংক্রান্ত নিয়মাবলি বা নির্দেশিকাসংক্রান্ত কপি এবং এয়ারক্রাফট উড্ডয়নের সক্ষমতা, যোগ্যতাসংক্রান্ত আন্তর্জাতিক স্বীকৃত নিয়মাবলি বা নির্দেশিকাও খোঁজা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button