লিড নিউজ

সীমান্তে জমজমাট গোল্ড স্মাগলিং ধরা পড়ল ৪১কেজি স্বর্ণের বিস্কুট

 

 

বিশেষ প্রতিনিধি : জমজমাট গোল্ড স্মাগলিং ভারত বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকায়। লেনদেনের গরমলি হওয়ায় এবার ধরা পড়েছে ৪১ কেজি ৪৯১ গ্রাম স্বর্ণের বিস্কুট। পাচারকারীরাও পালিয়েছে স্বর্ণের বিস্কুট ফেলে। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার বনগাঁর গুনারমাঠ ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা ৩২১টি স্বর্ণের বিস্কুট, চারটি স্বর্ণের বার ও একটি স্বর্ণের কয়েন জব্দ করেছে। উদ্ধার হওয়া স্বর্ণের বিস্কুট ও বারের ওজন প্রায় ৪১ কেজি ৪৯১ গ্রাম। যার আনুমানিক বাজার মূল্য ২১ কোটি ২২ লাখ রুপি।

এছাড়াও এসময় একটি কাঠের নৌকা, চারটি মোবাইল ফোন ও বেশ কিছু জিনিস উদ্ধার করা হয়। বিএসএফ সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের গুনারমাঠ এলাকায় ইছামতি নদীর ধার দিয়ে পাচারকারীরা এই স্বর্ণ পাচারের চেষ্টা করছিল। ঘটনার সময় বিএসএফ সদস্যরা পাচারকারীদের তাড়া করে এই বিপুল পরিমাণ স্বর্ণ জব্দ করেন।

নির্দিষ্ট গোয়েন্দা তথ্য পাওয়ার পরই গতকাল বৃহস্পতিবার বিএসএফ এর ১৫৮ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা গুনারমাঠ গ্রামের কাছে ইছামতি নদীর ধারে আন্তর্জাতিক সীমান্তের সন্দেহজনক এলাকায় অভিযান চালায়। সন্ধ্যা নাগাদ বিএসএফ সদস্যরা প্রায় ৭-৮ জন সন্দেহভাজন চোরাকারবারিকে আন্তর্জাতিক সীমান্ত পেরিয়ে ইছামতি নদীতে একটি কাঠের নৌকায় ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশ করতে দেখে।

এসময় তাদেরকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে বিএসএফ সদস্যরা। পরে চোরাকারবারিরা তাদের সমস্ত জিনিসপত্র ফেলে নদীতে ঝাঁপ দেয় এবং বাংলাদেশে ফিরে যায়। সেখানে ব্যাপক তল্লাশি চালিয়ে ৫টি ব্যাগ জব্দ করা হয় যার মধ্যে স্বর্ণের বিস্কুট, বার ও কয়েনসহ বেশ কিছু জিনিসপত্র পাওয়া যায়। আজ শুক্রবার বিএসএফের পক্ষ থেকে এক বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে ভারতীয় আইন প্রয়োগকারী সংস্থার দ্বারা এটিই সবচেয়ে বড় একক স্বর্ণ চোরাচালান জব্দের ঘটনা।

 

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button