লিড নিউজ

বিপৎসীমার ১০ সেন্টিমিটার ওপরে তিস্তার পানি

 

 

উত্তরাঞ্চল প্রতিনিধি : তিস্তা নদীর পানি বিপৎসীমার ১০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এই পানি আরও বাড়তে পারে। সোমবার বিকেল ৩ টায় তিস্তার ডালিয়া পয়েন্টে পানি প্রবাহ ছিল ৫২ দশমিক ৭০ সেন্টিমিটার। এই পয়েন্টে বিপৎসীমা ধরা হয় ৫২ শমিক ৬০ সেন্টিমিটার। পানি উন্নয়ন বোর্ড বন্যার পূর্বাভাস দিয়ে স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে সতর্ক বার্তা পাঠিয়েছে। ভারী বর্ষণ ও উজানের ঢলে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় আবারও তিস্তা পাড়ে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা নিম্নাঞ্চল ও চরের মানুষজনকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন। পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তিস্তা পাড়ের মানুষ মাঝে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। বসতভিটা ও ফসলহানির আশঙ্কা করছেন তিস্তা পাড়ের মানুষ।
গত এক মাসে তিস্তার পানি বেশ কয়েকবার বিপৎসীমা অতিক্রম করে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। এসময় তিস্তার দুইপাড়ে শত শত মানুষের বসত ভিটা নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এছাড়া, ভুট্টা,ধানসহ অন্যান্য ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়। বর্তমানে কৃষকরা নদীর তীরবর্তী ও চর এলাকায় আমান ধানের চারা রোপন করেছেন। বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হলে আমনের চারা নষ্ট হবে। কৃষকরা জানান, কয়েকদিন আগের বন্যার কারণে এমনিতে আমনের বীজতলা করতে দেরি হয়েছে। দেরিতে চারা রোপন করা হয়েছে। আমনের চারা ক্ষতি হলে ধানের আবাদ পুরোটাই নষ্ট হওয়ার শঙ্কা রয়েছে।
রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান হাবীব বলেন, তিস্তার পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে। পানি আরও বাড়তে পাড়ে। আমরা স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে সতর্ক বার্তা পাঠিয়েছি।

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button