আন্তর্জাতিক

মোমেনের অস্বীকারের পরও মিশেল বলেন- বাংলাদেশে হত্যা গুম গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নেই

কূটনৈতিক রিপোর্টার : বাংলাদেশে বিচারবহির্ভূত হত্যা, গুম, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সংকোচন, সুশীল সমাজসহ মানবাধিকারের বিভিন্ন দিক নিয়ে কথা বলেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল ব্যাচেলেট। রবিবার (১৪ আগস্ট) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় আলাদা বৈঠকের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘ মনে করে বাংলাদেশে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নেই এবং সরকার সেন্সরশিপ আরোপ করে।

এ ব্যাপারে সরকারের অবস্থান জানিয়ে মোমেন বলেন, তিনি এমন কিছু দেখছেন না। বাংলাদেশের গণমাধ্যম খুবই শক্তিশালী।গণমাধ্যমে সরকারি নিয়ন্ত্রণ চলে এমন অভিযোগের জবাবে মিশেল ব্যাচেলেটকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, দেশে প্রতিদিন দুই হাজার ৮০০ সংবাদপত্র প্রকাশিত হয়।একইসঙ্গে, জাতিসংঘ মনে করে বাংলাদেশে সুশীল সমাজ নেই। তার জবাবে মন্ত্রী বলেন, এখানে একটি শক্তিশালী সুশীল সমাজ আছে। দেশে কয়েক হাজার এনজিও কাজ করছে।

এদিকে, গুমের ব্যাপারে জানতে চাইলে মিশেল ব্যাচেলেটকে মোমেন বলেন, সরকারের বিরুদ্ধে গত ১০ বছরে ৭৬ জনকে গুম করার অভিযোগ আছে। তাদের মধ্যে ১০ জনের সন্ধান পাওয়া গেছে। পরিবার ভয়ে তথ্য দেয় না। তারা গুম হওয়াদের ব্যাপারে জানতে আগ্রহী।আর বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সাল থেকে এরকম হত্যাকাণ্ডের কোনো খবর নেই। ২০০৩-২০০৫ সালে এমন হত্যাকাণ্ড ঘটত। তবে এ ধরনের ঘটনা থাকলে সরকার তদন্ত করে দেখবে।অপরদিকে, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, তার সঙ্গে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, মানবাধিকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রশিক্ষণের বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করেছেন মিশেল ব্যাচেলেট।

 

 

 

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Back to top button