লিড নিউজ

অবৈধ এডহক কমিটির বাচসাস নির্বাচন স্হগিত-সত‍্যের জয় হয়েছে বললেন ফালগুনী

বিশেষ প্রতিনিধি : অবৈধভাবে নির্বাচন করার অভিযোগে ফের স্হগিত হয়েছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি’র (বাচসাস) একটি অবৈধ পক্ষের নির্বাচন। এর ফলে কাল শুক্রবার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির (বাচসাস) শুক্রবারের অনুষ্ঠিতব্য অবৈধ নির্বাচন হচ্ছেনা। এই কর্মকাণ্ডের ওপর আবারও স্থিতাবস্থা বজায় রাখার আদেশ দেয়া হয়েছে।অভিযোগ করা হয়েছে, বাচসাস গঠনতন্ত্র বিরোধী এই পক্ষ অবৈধভাবে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করে নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছিল আগামী ২ সেপ্টেম্বর। এ নিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করা হলে আজ আদালত অবৈধভাবে নির্বাচন করার অভিযোগে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি’র (বাচসাস) অবৈধ পক্ষের নির্বাচন স্হগিত ঘোষণা করে স্থিতিবস্থা জারি করে।

আমাদের কোর্ট রিপোর্টার জানান, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতির (বাচসাস) শুক্রবারের অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনী কর্মকাণ্ডের ওপর আবারও স্থিতাবস্থা বজায় রাখার আদেশ দেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার জেলা ও দায়রা জজ এ এইচ এম হাবিবুর রহমান এই আদেশ দেন। এর আগে গত ১৮ আগস্ট ঢাকার চতুর্থ সিনিয়র সহকারী জজ তানিয়া শাম্মী স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু ২২ আগস্ট আবার শুনানি শেষে স্থিতাবস্থা প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। বাচসাসের সদস্য ও দৈনিক আমাদের সময়ের সহসম্পাদক মো. জাহিদ হাসানের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত নির্বাচনী তফসিলের ওপর স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেন। পরে ওই আদেশ প্রত্যাহার করায় তিনি আবার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে আপিল করেন। ওই আপিলের ওপর প্রাথমিক শুনানি শেষে আবারও স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেন আদালত।

বাদীর আইনজীবী মো. দেলোয়ার হোসেন সাংবাদিকদের জানান, আগামী ৪ অক্টোবর পর্যন্ত স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। যাদের ওপর স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তারা হলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ফরিদ বাশার, নির্বাচন কমিশনার এরফানুল হক নাহিদ ও নির্বাচন কমিশনার আবুল হোসেন মজুমদার। আইনজীবী বলেন, স্থিতাবস্থা বজায় রাখার এই নির্দেশের ফলে আগামী ২ সেপ্টেম্বর শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনের সকল ধরনের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। বাচসাসের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী নির্বাচনী ভোটার তালিকায় অনিয়ম, বিভিন্ন গড়মিল ও সমিতির সদস্য না হওয়া সত্বেও ভোটার তালিকায় নাম থাকা এসব চ্যালেঞ্জ করে নির্বাচনের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন জানান জাহিদ হাসান।

গত ২৮ জুলাই তিনজন নির্বাচন কমিশনার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। তফসিল অনুযায়ী ইতিমধ্যে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন অনেকেই। বাদী জাহিদ হাসান নির্বাচনের তফসিল ও ভোটার তালিকা বাতিল চেয়ে গত ১১ আগস্ট এই মামলা দায়ের করেন। সমিতির গঠনতন্ত্রের বাইরে একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করে অবৈধ পন্থায় এই নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে যাচ্ছে বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়।
এদিকে বাচসাসের কার্যকরী কমিটি নির্বাচন কমিশন গঠন করে গত ১৪ আগস্ট একটি নির্বাচন সম্পন্ন করেছেন। ওই নির্বাচনে সভাপতি হয়েছেন ফাল্গুনী হামিদ এবং সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন শপথ চৌধুরী।
এদিকে বাচসাস কার্য নির্বাহী পরিষদের পক্ষে বর্তমান সভাপতি ফালগুনী হামিদ এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, সত‍্যের জয় হয়েছে। ২ সেপ্টেম্বর অবৈধ নির্বাচন হবে না। অগঠনতান্ত্রিক ভাবে এডহক কমিটি নিয়ন্ত্রিত অবৈধ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক আয়োজিত বাচসাস নির্বাচনের উপর অস্থায়ী স্থিতাবস্থা দিয়েছেন ঢাকা জেলা ও দায়রা জজ জনাব এ এইচ এম হাবিবুর রহমান। তিনি বাচসাস সদস্যদের উদ্দেশ্যে আরো জানিয়েছেন, আজ ১ সেপ্টেম্বর আদালতের রায় অনুযায়ী ২ সেপ্টেম্বর বাচসাস এর কোন নির্বাচন জাতীয় প্রেসক্লাবে হবে না।

বাচসাস নির্বাচন ইতিমধ্যে হয়ে গিয়েছে। সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন ফালগুনী হামিদ সাধারন সম্পাদক শপথ চৌধুরী। আগামী ৯ সেপ্টেম্বর সকাল দশটায় এফডিসির জহির রায়হান মিলনায়তনে বাচসাস এর সাধারন সভা। ওই সভায় তিনি সকল বাচসাস সদস্যদের উপস্থিত থাকার আমন্ত্রন জানিয়েছে।

ওদিকে কথিত অবৈধ এডহক কমিটি নিয়ন্ত্রিত অবৈধ নির্বাচন (বাচসাস নির্বাচন ২০২২-২০২৪) কমিশন কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাচন কমিশনার ফরিদ বাশার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, সম্মানিত সদস্য, আগামীকাল ২ সেপ্টেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাচসাস নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বিভ্রান্তির কোন সুযোগ নেই। ভোট গ্রহনের সময়ঃ দুপুর ১২টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত।

 

Related Articles

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button